সদ্য সংবাদ :
ওপার বাংলা

কলকাতা বইমেলা: পাসপোর্ট-টাকা খুইয়ে দিশেহারা দিব্য প্রকাশনীর ম্যানেজার

Published : Tuesday, 4 February, 2020 at 1:42 PM
ওপাড় বাংলা ডেস্ক: কলকাতা বইমেলায় এসে পাসপোর্ট সহ লক্ষাধিক রুপি ও ডলার খুইয়েছেন এক বাংলাদেশি বই ব্যাবসায়ী। বর্তমানে অসহায় ও বিভ্রান্তিকর অবস্থার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন তিনি। ওই বই ব্যাবসায়ীর নাম মহম্মদ খায়রুল হাসান সাজু।


কলকাতার কাছেই সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্কের ময়দানে ৪৪ তম আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলা প্রাঙ্গনে স্টল দিয়েছিলেন খায়রুল হাসান সাজু। তার বাড়ি বাংলাদেশের গাইবান্ধা জেলার নাকিহাট এলাকায়। বিগত কয়েক বছর ধরেই কলকাতা বইমেলায় তিনি স্টল দিয়ে আসছেন। এবারে কলকাতা বইমেলায় তিনি স্টল দিয়েছিলেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় বই প্রকাশনি সংস্থা দিব্য প্রকাশনীর হয়ে।

এই প্রকাশনীর মার্কেটিং ম্যানেজার খায়রুল হাসান সাজু। কলকাতা বইমেলার বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নের ১৭ নম্বর স্টলটি ছিলো তার। গত রোববার স্থানীয় সময় বিকাল ৩টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটে খায়রুলের নিজের দিব্য প্রকাশনীর স্টলে। এবার দিব্য প্রকাশনীর তরফে কলকাতা বইমেলায় তিনি একাই ছিলেন।

গত রোববার ছুটির দিন হওয়ায় বইমেলায় ভীড় একটু বেশিই ছিলো। খায়রুলের বুক স্টলেও এদিন যথেষ্ট ভিড় ছিলো। সেই ভিড়ের মধ্যে এক ক্রেতার পছদের বই খুঁজে বের করার জন্য তিনি নিজের কাঁধে থাকা ব্যাগটি রাখেন স্টলের এক চেয়ারে। ওই ব্যাগের মধ্যেই ছিলো খায়রুলের পাসপোর্টসহ ২ লক্ষ ভারতীয় রুপি এবং ৫০০ মার্কিন ডলার। ক্রেতার পছন্দের বইটি খুঁজে তিনি ক্রেতাকে একটি রশিদ দেন। এই অল্পসময়ের মধ্যেই চেয়ার থেকে তার ব্যাগটি চুরি হয়ে যায়।

ব্যাগ চুরির কথা জেনেই মেলায় থাকা নিরাপত্তা রক্ষীরা ওই স্টলে থাকা বিভিন্ন ক্রেতাদের ব্যাগ পরীক্ষা করে দেখেন। কিন্ত খায়রুলের ব্যাগটি আর পাওয়া যায়নি।

খায়রুল জানান, কলকাতা বইমেলা শেষ হওয়ার পর আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি কলকাতার ইস্টার্ন মেট্রোপলিটন বাইপাসের ধারে মুকুন্দপুরের কাছে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিউরো চিকিৎসক দেখানোর কথা ছিলো তার। চিকিৎসার ফি-সহ আনুষাঙ্গিক যাবতীয় খরচের অর্থ ছিলো ওই ব্যাগটির মধ্যে। কিন্ত সেই ব্যাগটি খোয়া যাওয়ায় কার্যত দিশেহারা তিনি।

ব্যাগ হারানোর পরেই কলকাতা বইমেলার আয়োজক সংস্থা গিল্ড কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানিয়েছেন তিনি। তাছাড়া বইমেলার পুলিশ কন্ট্রোল রুমেও অভিযোগ জানান তিনি। অভিযোগ দায়ের করেছেন স্থানীয় বিধাননগর উত্তর থানাতেও। পাশাপাশি গোটা বিষয়টি তিনি জানিয়েছেন কলকাতায় অবস্থিত বাংলাদেশ ডেপুটি হাই কমিশনেও। তবে সোমবার রাত পর্যন্ত পাসপোর্ট বা রুপি ফেরত পাননি তিনি।

তবে আদৌ পাসপোর্ট ও রুপি এবং ডলার সহ গুরুত্বপুর্ণ নথি ভর্তি ব্যাগটি তিনি ফিরে পাবেন কি না তা নিয়ে সন্দেহে রয়েছে খায়রুলের।

তিনি বাংলাদেশ জার্নালের কলকাতা প্রতিনিধিকে জানান, ‘রুপি ও ডলারের থেকেও বেশি গুরুত্বপূর্ন আমার পাসপোর্টটি। কারন পাসপোর্ট না পেলে বাংলাদেশে ফিরে যেতে খুব অসুবিধায় পড়তে হবে আমাকে।’

এবিনিউজ টুয়েন্টিফোর বিডিডটকম//এফ//









সম্পাদক: শাহীন চৌধুরী
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: হেলেনা বিলকিস চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক: শঙ্কর মৈত্র, নির্বাহী সম্পাদক: বরুণ ভৌমিক নয়ন, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: সৈয়দ আফজাল বাকের, ঢাকা অফিস: ২/১ হুমায়ুন রোড (কলেজ গেট) মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭ ফোন: ৮৮-০২-৯১১৯১১৬, হটলাইন: ০১৭১১-৫৮৩৬২৩, ০১৭১৭-০৯৮৪২৮, চট্টগ্রাম অফিস- আবাসিক সম্পাদক: জাহিদুল করিম কচি, নাসিমন ভবন (দ্বিতীয় তলা) ১২১, নূর আহমেদ রোড, চট্টগ্রাম ফোন: ০৩১-২৫৫৭৫৪২ হটলাইন: ০১৭১১-৩০৭১৭১, E-mail : [email protected], Web : www.abnews24bd.com, Developed by i2soft Technology Ltd.
Close