সদ্য সংবাদ :
রকমারি

জুতা গাছে ঝোলে কেন?

Published : Friday, 29 January, 2021 at 9:42 PM
রকমারি ডেস্ক: জুতা গাছে ঝোলানো নিয়ে অনেক কল্প-কাহিনী, উপকথা, সংস্কার-কুসংস্কার প্রথা প্রচলিত রয়েছে আমাদের সমাজে। গাছে জুতা ঝোলানোর নানা গল্পও প্রচলিত রয়েছে।



ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের সেই সেতুর কথা তো অনেকেই জানেন। ভ্রমণে গেলে সেখানে একটি তালা ঝুলিয়ে আসেন দর্শনার্থীরা। কিন্তু গাছে জুতা ঝুলিয়ে রাখার বিষয়টি একটু অন্য রকম। যদিও পৃথিবীর অনেক দেশেই এটি প্রচলিত। তবে কী কারণে এবং কবে থেকে এটি শুরু হয়েছে তার মূল কারণ এখনো অজানা।

যদিও প্রচলিত বিষয়ে সব সময়ই কিছু কথা লোকমুখে শোনা যায়। উত্তর আমেরিকায় ত্রিশের দশকের দিকে মানুষ অতিরিক্তই জুতা গাছে ঝুলিয়ে রাখতো। সেই সময় খুবই অর্থনৈতিক মন্দা ছিলো। জানা যায়, যাদের জুতা নেই তারা যেন পরতে পারে এজন্যই কাজটি করা হতো। তবে অর্থনৈতিক মন্দা কেটে গেলেও এই প্রথা রয়েই গেছে।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় মার্কিন সৈন্যরা ভিয়েতনাম ও কোরিয়ায় যুদ্ধ করে। যুদ্ধ শেষে ফেরার পথে তারা মিলিটারি বুট গাছে ঝুলিয়ে রেখেছিলো। যুদ্ধ শেষ, এখন বাড়ি ফেরার পালা— গাছে বুট জোড়া ঝুলিয়ে এটিই বোঝাতে চেয়েছেন তারা।

যুক্তরাষ্ট্রের ইধাহো রাজ্যের একটি গাছে দীর্ঘ ৬০ বছর ধরে জুতা ঝুলিয়ে রাখা হতো। তবে দুর্ভাগ্যবশত ২০১০ সালে গাছটি অজ্ঞাত কারণে পুড়ে যায়। শুধু যুক্তরাষ্ট্র নয়, অস্ট্রেলিয়া, জার্মানি, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ আফ্রিকা, হাওয়াই দীপপুঞ্জ, চীন, মধ্যপ্রাচ্যেও এ ধরনের ঘটনা ঘটতে দেখা যায়।

জুতা ঝোলানোর এই প্রথা নিয়ে প্রচলিত আরো একটি গল্প হলো— যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানে একটি সিরিয়াল কিলার গাছে জুতা ঝুলিয়ে রাখতো। মূলত, তিনি যাদের হত্যা করতেন তাদের জুতা গাছে ঝুলিয়ে রাখতেন। তবে ইউরোপ ও যুক্তরাজ্যে গাছে জুতা ঝোলানোর কারণ ভিন্ন। টরন্টো সানকে একজন লেখক জানান, যৌন উর্বরতা বাড়ানোর জন্য প্রার্থনাস্বরূপ গাছে জুতা ঝোলানো হয়। তবে গাছে জুতা ঝোলানোর সঙ্গে যৌন উর্বরতা বৃদ্ধির কি সম্পর্ক তা বিস্তারিত জানাননি তিনি।

এখানেই শেষ নয়, মৃত প্রিয়জনকে মনে রাখার জন্যও কিছু কিছু স্থানে গাছে জুতা ঝোলানো হয়। প্রচলিত আছে, একবার এক মেয়ের বাবা মারা যান। এরপর তিনি বাবার জুতাজোড়া গাছে ঝুলিয়ে দেন। পরবর্তী সময়ে প্রায়ই মেয়েটি সেখানে যেত এবং মনে মনে বাবার সঙ্গে কথা বলতো।

আবার কেউ কেউ জুতাজোড়ায় বিভিন্ন চিঠি লিখে গাছে ঝুলিয়ে রাখেন। সাধারণত অমোচনীয় কালি দিয়ে চিঠিগুলো লেখা হয়। আবার কোনো কোনো স্থানে মনে করা হয়, গাছ থেকে যদি জুতা পড়ে যায় তাহলে তা অশুভ কিছুর আলামত।



এবিনিউজ টুয়েন্টিফোর বিডিডটকম//এফ//








সম্পাদক: শাহীন চৌধুরী
উপদেষ্টা সম্পাদক: হেলেনা বিলকিস চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক: শঙ্কর মৈত্র, নির্বাহী সম্পাদক: বরুণ ভৌমিক নয়ন, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: সৈয়দ আফজাল বাকের, ঢাকা অফিস: ২/১ হুমায়ুন রোড (কলেজ গেট) মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭ ফোন: ৮৮-০২-৪৮১১৯৪৯৫, হটলাইন: ০১৭১১-৫৮৩৬২৩, ০১৭১৭-০৯৮৪২৮, চট্টগ্রাম অফিস- আবাসিক সম্পাদক: জাহিদুল করিম কচি, নাসিমন ভবন (দ্বিতীয় তলা) ১২১, নূর আহমেদ রোড, চট্টগ্রাম ফোন: ০৩১-২৫৫৭৫৪২ হটলাইন: ০১৭১১-৩০৭১৭১, E-mail : [email protected], Web : www.abnews24bd.com, Developed by i2soft Technology Ltd.
Close